Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

ক্রঃনঃ

সেবার ধরণঃ

সেবা প্রাপ্তির জন্য অনুস্মরণীয় পদ্ধতিঃ

প্রয়োজনীয় ফি ও নির্ধারিত  ন্যুনতম/সর্বোচ্চ সময় সীমাঃ

সেবা প্রদানের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা/কর্মচারীর পদবী।

নির্ধারিত সময়ে সেবা না পেলে কি করণীয়।

১।

উপজেলা  ভূমি অফিসের সকল প্রকার আবেদনপত্র।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন করতে হবে।

সকল প্রকার আবেদনে ১০/-টাকার কোর্টফি সংযুক্ত করতে হবে।

সকল প্রকার আবেদন অফিস সহকারীর নিকট জমা দিতে হবে।

(ক) আদেশের ৩০(ত্রিশ) দিনের মধ্যে সহকারী কমিশনার(ভূমি) বরাবর আবেদন করা যাবে।

২।

নামজারী/জমা খারিজ

সহকারী কমিশনার(ভূমি) বরাবর আবেদন করতে হবে। আবেদনের সাথে মূল দলিল ও ভায়া দলিলের সার্টিফাইড কপি বা মূল কপি সহ ফটোকপি,সর্বশেষ খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি বা মূল কপি সহ ফটোকপি,মৃত ব্যাক্তির ত্যাক্ত সম্পত্তির ক্ষেত্রে ওয়ারিশদের মধ্যে রেজিষ্ট্রিকৃত বাটোয়ারা দলিল/ওয়ারিশান সনদ ও জমির পূর্ণাঙ্গ তপশীল(মৌজা,খতিয়াননং,দাগনং,জমিরপরিমাণ ইত্যাদি)।

* কোন জটিলতা না থাকলে আবেদন

করার ৩০(ত্রিশ) দিনের মধ্যে কার্যক্রম সমাপ্ত করা হবে।

* আবেদনপত্রের সাথে ৫/- টাকার কোর্টফি দিতে হবে।

*রেকর্ড সংশোধন ফি-২০০/-টাকা,

* মিউটেশন খতিয়ান ফি-৪৩/-টাকা।

* নোটিশ জারী ফি-২/-টাকা (অনধিক ৪ জনের জন্য)

.............................................

মোট = ২৪৫/-টাকা +৪ জনের অতিরিক্ত প্রতিজনের জন্য অতিরিক্ত নোটিশ জারী ফি-০.৫০টাকা লাগবে।

(ক) সহকারী কমিশনার(ভূমি),

জমা সহকারী ও ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা।

(খ) কানুনগো ও ভিপি সহকারী নথি পরীক্ষা করেন।

(গ) ইউনিয়ন ভুমি সহঃ কর্মকর্তা ও সার্ভেয়ার তদন্ত করেন।

(ঘ) জমা সহকারী নথি সংরক্ষণ ,উপস্থাপন ও খতিয়ান সংরক্ষণ করেন।

(ঙ) নাজির ডিসিআর প্রদান করেন।

(চ) নাজির ও প্রসেস সার্ভার নোটিশ জারী অন্তে প্রতিবেদন দেন।

(ক) আদেশের ৩০(ত্রিশ) দিনের মধ্যে সহকারী কমিশনার(ভূমি) বরাবর আবেদন করা যাবে।

(খ) সহকারী কমিশনার(ভূমি)-এর আদেশের বিরুদ্ধে ৩০(ত্রিশ) দিনের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) বরাবর আপীল করা যাবে।

৩।

রেকর্ড ও আদেশের জাবেদা নকল

কোন রেকর্ড বা আদেশের জাবেদা নকল পেতে হলে

নির্ধারিত ফরমে আবেদন করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় (রেকর্ডরুম) হতে সংগ্রহ করতে হবে।

 

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা,রেকর্ডরুম,

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়।

 

৪।

(1)     খাস কৃষি জমি বন্দোবস্ত গ্রহণ

(2)    খাস অকৃষি জমি বন্দোবস্ত গ্রহণ

(১) সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর নির্ধারিত ফরমে ভূমিহীন সনদ  আবেদন করতে হবে।

(২) জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করতে হবে।

(১)প্রতি একর বা তার অংশের জন্য

১/-টাকা,ন্যূণতম সময় ৬ মাস।

(২) কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত সেলামী

পরিশোধ করতে হবে।

(১) উপজেলা নির্বাহী অফিসার,  সহকারীকমিশনার (ভূমি),ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা,ইউনিয়ন চেয়ারম্যান।

(২) অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক

(রাজস্ব), উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার(ভূমি)

জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব), উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার (ভূমি),কানুনগো।

 

৫।

অর্পিত সম্পত্তি একসনা লীজ নবায়ণ

(ক) একসনা লীজ নবায়নের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার(ভূমি)-এর নিকট

আবেদন করতে হবে।

(খ) পুকুর,বাগান,বিল প্রভৃতির জন্য প্রকাশ্য নীলাম অনুষ্ঠিত হবে।

(ক) কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত সেলামী,

ডিসিআর মারফত পরিশোধ করতে হবে। কৃষি জমি একর প্রতি ৫০০/-টাকা,এবং অকৃষি ভিটা জমি একর প্রতি ২০০০/- টাকা হারে।

(খ) প্রত্যর্পন তালিকা ,২০০১-এর বহির্ভূত কেসগলি ইজারা প্রদান করা হয়না।

(গ) জটিলতা নাথাকলে ৭(সাত) দিন।

(ক) অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক

(রাজস্ব), উপজেলা নির্বাহীঅফিসার

,সহকারী কমিশনার (ভূমি)

(খ) ভিপি সহকারী নথি সংরক্ষণ,

উপস্থাপন ও ডিসিআর প্রদান করেন।

জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব), উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার (ভূমি),কানুনগো।

 

৬।

ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ

ইউনিয়ন ভূমি অফিসে ভূমি মালিকগণ তাদের ব্যবহার ভিত্তিতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হারে দাখিলার মাধ্যমে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করবেন।

ব্যবহার ভিত্তিক ভূমি উন্নয়ন করের হারঃ

(ক) ৮.২৫ একর পর্যন্ত ভূঃউঃকর মওকুফ (শুধুমাত্র কৃষি জমির জন্য)।

(২) ৮.২৫ একরের উর্দ্ধে (২৫থেকে ৩০ বিঘা) প্রতি শতক ০.৫০ টাকা হারে (শুধুমাত্র কৃষি জমির জন্য)।

(৩)১০.০০ একরের উর্দ্ধে প্রতি শতক ১/-টাকা হারে।

(৪) প্রাতিষ্ঠানিক/আবাসিক জমির জন্য প্রতি শতক ৫/-টাকা হারে।

(৫) শিল্প/বাণিজ্যিক জমির জন্য প্রতি শতক ১৫/- টাকা হারে।

ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ও

ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা

তাৎক্ষনিক ভাবে রেকর্ড পত্রাদি পর্যালোচনান্তে নির্ধারিত হারে ভূমি উন্নয়ন কর গ্রহণ করবেন।

প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে সহকারী কমিশনার (ভূমি)-এর নিকট আবেদন করা যেতে পারে।

৭।

বিবিধ মামলা

নামজারী মামলা বাতিল/সংশোধন, ভূমি বিবরণী বাতিল/সংশোধন,দেওয়ানী আদালতের রায়ের আলোকে রেকর্ড সংশোনের ক্ষেত্রে রায়ের জাবেদা নকল,আরজীর কপি ও খতিয়ান সহ জমির পূর্ণাঙ্গ তপশীল সহ কাগজে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের সাথে ১০/-টাকা মূল্যের কোর্ট ফি জমা দিতে হবে।

(ক) সহকারী কমিশনার (ভূমি)

(খ) নথি উপস্থাপন ও নোটিশ ইস্যুকরণ প্রধান সহকারী।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব)-এর নিকট আপীল করা যেতে পারে।

৮।

সরকারি খাস ও অর্পিত সম্পত্তির ক্ষতি সাধন বিষয়ে আপত্তি।

সরকারি খাস ও অর্পিত সম্পত্তি অবৈধ দখল,

সাধারণের ব্যবহারে বাধাপ্রদান বা ক্ষতি সাধন ও আত্নসাৎ করলে প্রতিকারের জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি)-এর নিকট আপত্তি দেয়া যাবে।

(ক) আবেদনের সাথে ১০/-টাকা মূল্যের কোর্টফি জমা দিতে হবে।

(খ) আবেদনের সাথে সাথেই কার্যক্রম শুরু করা হবে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

৯।

(3)      (ক) হাটের খাস জমিতে অস্থায়ী লাইসেন্স প্রদান।

(খ) লাইসেন্স নবায়ন।

হাটের খাস জমিতে অস্থায়ী লাইসেন্স প্রাপ্তির ক্ষেত্রে  জমির তপশীল  উল্লেখ পূর্বক সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন করতে হবে।

(১)(ক) আবেদনের সাথে ১০/-টাকা মূল্যের কোর্টফি সংযুক্ত করতে হবে।

(খ) কার্য়ক্রম সম্পন্ন হতে ২ থেকে ৩ মাস।

(১) উপজেলা নির্বাহী অফিসার,     (২) সহকারী কমিশনার(ভূমি)

ফোনঃ ০৭৭১-৬৬৯৩৫।

 

জেলা প্রশাসক মহোদয় চুড়ান্ত অনুমোদন দিবেন।

 

১০।

(4)              ভূমি সংক্রান্ত পরামর্শ প্রদান।

ভূমি সংক্রান্ত যেকোন জটিলতা সৃষ্টি হলে কাগজপত্র

সহকারী কমিশনার(ভূমি)/কানুনগো/ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা-এর নিকট উপস্থিত হলে মৌখিক পরামর্শ দিবেন।

কোন ফি প্রয়োজন নাই।

সহকারী কমিশনার(ভূমি)/কানুনগো

/ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার